কোরআন ও সহীহ সুন্নাহ ভিত্তিক বার্তা প্রচার করাই হল এই ওয়েবসাইটের মূল উদ্দেশ্য।।

ঝগড়ার পরে যা করবেন না

দুজন মানুষ একসঙ্গে থাকলে ঝগড়া হবেই। সেটা ছোটখাটো বিষয় নিয়েও হতে পারে, আবার বড় কোনো ঘটনা নিয়েও হতে পারে। ঝগড়া হবে আবার মিটমাট হবে, এটাই স্বাভাবিক। তবে ঝগড়া করার পর কিছু জিনিস না করাই ভালো। জানতে চান, সেগুলো কী কী? তাহলে ফ্যামিলি শেয়ার ওয়েবসাইটের এই তালিকা একবার দেখে নিতে পারেন। পরামর্শগুলো আপনার কাজে লাগবে। ১. … Read more

স্ত্রীকে মুহাব্বত করার সুন্নাত তরীকা‬।

১। রসূল(সাঃ)বিবিগণকে খুব মুহাব্বত করতেন। ২। তাদেরকে চুমু দিতেন এবং কখনো কখনো তাদের উরুতে মাথা রেখে শুয়ে থাকতেন। ৩। হযরত আয়েশা (রাঃ) পাত্রের মুখের যে জায়গায় মুখ দিয়ে পানি পান করতেন, রসুল(সাঃ)সে জায়গায়ই মুখ দিয়ে পান করতেন। ৪। রসূল(সাঃ) হাঁড়ের যে জায়গা থেকে গোস্ত খাওয়া শুরু করতেন হযরত আশয়া (রাঃ)ও হাড়ের ঐ জায়গা থেকে গোস্ত … Read more

দাম্পত্য জীবনে স্ত্রীর কর্তব্য

১. স্বামীর অসন্তুষ্টি থেকে বিরত থাকা। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, “তিনজন ব্যক্তির নামাজ তাদের মাথার উপরে উঠে না। (ক) পলাতক গোলামের নামাজ, যতক্ষণ না সে মনিবের নিকট ফিরে আসে। (খ) সে নারীর নামাজ, যে নিজ স্বামীকে রাগান্বিত রেখে রাত যাপন করে। (গ)সে আমিরের নামাজ, যার উপর তার অধীনরা অসন্তুষ্ট।” ২. স্বামীকে কষ্ট দেওয়া থেকে … Read more

পরিবারে বিবাদ সৃষ্টি হলে কি করণীয়

* ধৈর্য ধরুন * বিতর্কে যাবেন না * নীরবতা অবলম্বন করুন * তাৎক্ষণিক ঝগড়া পরিহার করুন * ঝগড়ার সুদূরপ্রসারী পরিণাম নিয়ে ভাবুন * কাউকে অপমান করবেন না * করো সমালোচনা করবেন না * কারো সাথে তুলনা দিতে যাবেন না * আওয়াজ উঁচু করবেন না *সদয় মনোভাব প্রকাশ করুন।

যে ৮ টি বিষয় আপনার দাম্পত্য জীবনকে অশান্তিময়, দুর্বল এবং অকার্যকর করতে থাকে

১) খারাপ ব্যবহার করা : তাকে এমন কিছু নিয়ে ঠাট্টা করা যাতে সে আঘাতপ্রাপ্ত হয়। এমন ধমক দেয়া যা অন্যদের সামনে তার অসম্মান হয়ে যায়। তাকে অপমান করা আপনার প্রতি তার শ্রদ্ধাবোধকে কমিয়ে দিবে। ২) সন্দেহ ও গীবত করা : কখনো সন্দেহ করতে যাবেন না। সন্দেহ সম্পর্ককে ধ্বংস করে। আপনার জীবনসঙ্গী আপনার খুব কাছের মানুষ … Read more

গৃহিণীদের কাজে সহযোগিতা করাও ইবাদত

পরিবারের নারীদেরকে এই সামান্য সহযোগিতাও ইবাদত। পারস্পরিক সহযোগিতা ও সহমর্মিতা একটি স্বতন্ত্র ও অনেক বড় নেক আমল। আর মাহে রমজানে তো যে কোনো নেক আমলের গুরুত্ব ও তাৎপর্য অন্য মাসের চেয়ে বেশি। এই মর্মে কোরআন বলছে, “তোমরা সৎকর্ম ও তাকওয়ার ক্ষেত্রে একে অন্যকে সহযোগিতা করবে। গুনাহ ও জুলুমের কাজে একে অন্যের সহযোগিতা করবে না। আল্লাহকে … Read more

Translate In English