কোরআন ও সহীহ সুন্নাহ ভিত্তিক বার্তা প্রচার করাই এই ওয়েবসাইটের মূল উদ্দেশ্য।।

যাদের মাথায় টাক রয়েছে তাদের জন্য মাথায় চুল প্রতিস্থাপনের হুকুম

কোন ব্যক্তির মাথায় যদি টাক থাকে তাহলে চিকিৎসা গ্রহন হিসেবে ঐ ব্যক্তির মাথার কোন এক অংশের চুল ফলিকল তুলে মাথার অন্য অংশে স্থানান্তর করতে শরীয়তের দৃষ্টিতে কোন আপত্তি নেই ইনশাআল্লাহ এটি জায়েয রয়েছে। কারন এটি দোষ দূর করা শ্রেণীর অন্তর্ভুক্ত।এটি আল্লাহ্‌র সৃষ্টিকে পরিবর্তন করা শ্রেণীর অন্তর্ভুক্ত নয় যেমনটা হাদীসে নিষেধাজ্ঞা এসেছে।
.
বিগত শতাব্দীতে সৌদি ‘আরবের শ্রেষ্ঠ মুফাসসির, মুহাদ্দিস, ফাক্বীহ ও উসূলবিদ, ফাদ্বীলাতুশ শাইখ, ইমাম মুহাম্মাদ বিন সালিহ আল-‘উসাইমীন (রাহিমাহুল্লাহ) [মৃত: ১৪২১ হি./২০০১ খ্রি.] কে জিজ্ঞেস করা হয়েছিল:টাকে আক্রান্ত ব্যক্তির মাথায় চুল প্রতিস্থাপন করা হয়। তা এভাবে যে, মাথার পেছনের অংশ থেকে চুল নিয়ে আক্রান্ত স্থানে প্রতিস্থাপন করা; এটা কি জায়েয?

জবাবে শাইখ বলেন: হ্যাঁ; এটি জায়েয। কেননা এটি আল্লাহ্‌র সৃষ্টিকে এর স্বরূপে ফিরিয়ে আনা এবং দোষ দূরীকরণ শ্রেণীয়। এটি সৌন্দর্যবর্ধক ও আল্লাহ্‌র সৃষ্টিতে বৃদ্ধি শ্রেণীয় নয়। তাই এটি আল্লাহ্‌র সৃষ্টিকে পরিবর্তন করার অধীনে পড়বে না। বরং এটি যা ঘাটতি আছে সেটাকে পুনরুদ্ধার করা এবং দোষ দূরীকরণের পর্যায়ভুক্ত। তিন ব্যক্তির ঘটনায় যা রয়েছে সেটি কারো অজানা হয় যে, তাদের একজন ছিল টাকযুক্ত ফিরিস্তারা তার কাছে গিয়ে তাকে জিজ্ঞেস করলেন, কোন্ জিনিস তোমার কাছে প্রিয়তর? সে বলল, সুন্দর চুল। সেই সাথে এ টাক থেকে মুক্তি, যার জন্য লোকেরা আমাকে ঘৃণা করে। রাসূল (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) বলেন, ফিরিস্তারা তখন তার মাথায় হাত বুলিয়ে দিলে তার টাক ভাল হয়ে গেল। তাকে সুন্দর চুল দান করা হলো।(ফাতাওয়া উলামায়িল বালাদিল হারাম পৃষ্ঠা-১১৮৫) শাইখ যে হাদিসটির দিকে ইঙ্গিত করেছেন সেটি সহিহ বুখারী, ৩৪৬৪, মুসলিম ২৯২৪, সহীহ ইবনু হিব্বান ৩১৪, মিশকাত, ১৮৭৬ নং হাদীসে রয়েছে (ইসলাম সাওয়াল ওয়া জাওয়াব, ফৎওয়া নং-৪৭৬৬৪)
.
উল্লেখ যে,নারী-পুরুষ উভয়ের জন্য পরচুলা ব্যবহার করা যাবেনা কেননা এটি হারাম। ইবনু ওমর।(রাযিয়াল্লাহু আনহুমা) হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেন,لَعَنَ اللهُ الْوَاصِلَةَ وَالْمُسْتَوْصِلَةَ وَالْوَاشِمَةَ وَالْمُسْتَوْشِمَةَ ‘আল্লাহ তা‘আলা সেই সকল নারীর উপর অভিশাপ করেছেন, যারা নিজে পরচুলা লাগায় এবং অন্যদেরকে পরচুলা লাগিয়ে দেয়। যারা অঙ্গ-প্রত্যঙ্গে উলকি আঁকে এবং অন্যকে আঁকিয়ে দেয়’ (সহীহ বুখারী, হা/৫৯৩৩; সহীহ মুসলিম, হা/২১২২)। উক্ত হাদীসে নারীদের কথা এসেছে। তবে পুরুষদের ক্ষেত্রেও এ বিধান প্রযোজ্য আল্লাহই সবচেয়ে জ্ঞানী
____________________
উপস্থাপনায়:
জুয়েল মাহমুদ সালাফি।