কোরআন ও সহীহ সুন্নাহ ভিত্তিক বার্তা প্রচার করাই এই ওয়েবসাইটের মূল উদ্দেশ্য।।

উমরী ক্বাযা সালাত এবং ক্বাযা সালাত আদায়ের জরুরী কিছু বিষয়

ক্বাযা উমরী (উমরী ক্বাযা) বলতে কোন সালাত আছে কি? অথবা এই অনাদায়ী সালাতের কোন কাফফারা আছে কি?ক্বাযা সালাত আদায়ের জরুরী কিছু বিষয়ঃ ▬▬▬▬▬▬▬💠💠💠▬▬▬▬▬▬▬ দীর্ঘ দিনের বা সারা জীবনের ক্বাযা সালাতকে ‘উমরী ক্বাযা’ বলা হয়।উমরী ক্বাযা’ অর্থাৎ বিগত বা অতীত জীবনের ক্বাযা সালাত সমূহ বর্তমানে নিয়মিত ফরয সালাতের সাথে যুক্ত করে ক্বাযা হিসাবে আদায় করা সম্পূর্ণরূপে … Read more

সুন্নত সালাতের ক্বাযা আদায় করা যাবে কি

প্রশ্ন: সুন্নত সালাতের ক্বাযা আদায় করা যাবে কি? সালাতের নিষিদ্ধ সময় কয়টি এবং উক্ত নিষিদ্ধ সময় কি সকল সালাতের জন্য নাকি শুধুমাত্র নফল সালাতের জন্য?কাযা সালাত পড়ার ক্ষেত্রে আযান ইকামত দিতে হবে কি? ▬▬▬▬▬▬▬💠💠💠▬▬▬▬▬▬▬ ◾সুন্নত সালাতের ক্বাযা আদায় করা যাবে কি? __________________________________ যেকোন সুন্নাত সালাত ছুটে গেলে তা পরে ক্বাযা আদায় করা যায় [সহীহ বুখারী, … Read more

ক্বাযা সালাতের বিধান

প্রশ্ন: ক্বাযা শব্দের অর্থ কি? ইসলামে ক্বাযা সালাতের বিধান কী? ক্বাযা সালাত কত প্রকার?ক্বাযা সালাত আদায়ের কয়টি অবস্থা হতে পারে? এবং ফরজ সালাতের ক্বাযা কখন এবং কিভাবে আদায় করব এর কোন নিষিদ্ধ সময় আছে কি? বিস্তারিত জানতে মনোযোগ সহকারে পোস্টটি পড়ুন ইন শা আল্লাহ্। ▬▬▬▬▬▬▬💠💠💠▬▬▬▬▬▬▬ ক্বাযা আরবী শব্দ,অর্থ দেরী করা,বিলম্ব করা। শরীয়তের পরিভাষায়ঃ নির্দিষ্ট সময়ে … Read more

ক্বাযা স্বলাত আদায় করতে বিলম্ব করা এবং নিষিদ্ধ ওয়াক্ত শেষ হওয়ার অপেক্ষা করা বা উমরী ক্বাযা আদায় করা

জাল হাদীছের কবলে রাসূলুল্লাহ (ﷺ) এর স্বলাত এর অংশবিশেষ শায়খ মুযাফফর বিন মুহসিন ক্বাযা স্বলাত আদায় করতে দেরী করা এবং নিষিদ্ধ সময়ে ক্বাযা স্বলাত আদায় করা যাবে না মর্মে যে ধারণা সমাজে চালু আছে তা সহিহ হাদীছের বিরোধী। বরং যখনই স্মরণ হবে কিংবা ঘুম থেকে জাগ্রত হবে তখনই ধারাবাহিকভাবে ক্বাযা স্বলাত আদায় করে নিবে। রাসূলুল্লাহ … Read more

কেউ যদি তার যিম্মায় থাকা (ছুটে যাওয়া) সালাতের ও ফরয সাওমের সংখ্যা মনে করতে না পারে, তবে সে কী করবে?

কেউ যদি তার যিম্মায় থাকা (ছুটে যাওয়া) সালাতের ও ফরয সাওমের সংখ্যা মনে করতে না পারে, তবে সে কী করবে? ——————————————————————————————————————– ছুটে যাওয়া সালাতের ক্ষেত্রে তিনটি অবস্থা হতে পারে : প্রথম অবস্থা : ঘুম বা ভুলে যাওয়ার কারণে সালাত ছুটে যাওয়া। এ অবস্থায় তার উপর কাযা করা ওয়াজিব। এর দলীল রাসূলুল্লাহ্‌ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের বাণী … Read more

কাযা নামাযের বিধি-বিধান

কেউ যথাসময়ে নামায পড়তে ঘুমিয়ে অথবা ভুলে গেলে এবং তার নির্দিষ্ট সময় অতিবাহিত হয়ে গেলে, পরে যখনই তার চেতন হবে অথবা মনে পড়বে তখনই ঐ (ফরয) নামায কাযা পড়া জরুরী। প্রিয় নবী (সাঃ) বলেন, “যে ব্যক্তি কোন নামায পড়তে ভুলে যায় অথবা ঘুমিয়ে পড়ে, তাহলে তার কাফফারা হল স্মরণ হওয়া মাত্র তা পড়ে নেওয়া।” অন্য … Read more