কোরআন ও সহীহ সুন্নাহ ভিত্তিক বার্তা প্রচার করাই হল এই ওয়েবসাইটের মূল উদ্দেশ্য।।

সুন্নাত পরিপন্থী আমলকে সর্বদা অস্বীকৃতি জানানো অপরিহার্য

মুমিন ব্যক্তি কেবলমাত্র কুরআন ও সহীহ হাদীসের যথাযথ অনুসরণ করবে এবং কুরআন ও সহীহ হাদীস পরিপন্থী আমলকে নিঃশর্তভাবে প্রত্যাখ্যান করবে।
আল্লাহ তা‘আলা বলেছেনঃ
‘মুমিনদের উক্তি তো এই যে, যখন তাদের মধ্যে ফায়ছালা করে দেওয়ার জন্য আল্লাহ ও তাঁর রাসূলের দিকে আহবান করা হয় তখন তারা বলে, আমরা শ্রবণ করলাম ও আনুগত্য করলাম। আর তারাই সফলকাম। যারা আল্লাহ ও তাঁর রাসূলের আনুগত্য করে, আল্লাহকে ভয় করে ও তাঁর অবাধ্যতা হ’তে সাবধান থাকে তারাই সফলকাম’।
***সূরা আন-নূরঃ আয়াতঃ ৫১-৫২।
আল্লাহ অন্যত্র বলেছেনঃ
‘আমি তোমাকে দ্বীনের এক বিশেষ বিধানের উপর প্রতিষ্ঠিত করেছি। সুতরাং তুমি তার অনুসরণ কর এবং যারা জানে না তাদের খেয়াল-খুশীর অনুসরণ কর না’।
***সূরা জাসিয়াঃ আয়াত-১৮।
সাহাবায়ে কেরাম অহি-র বিধান মানার ব্যাপারে যেমন কঠোর ছিলেন – অহি-র বিধান বহির্ভূত আমলের বিরুদ্ধে তেমনি কঠোর ছিলেন। যেমনঃ মু‘আবিয়া(রাঃ) যখন হজ্জ ও ওমরাহ পালনের উদ্দেশ্যে মদীনায় আসলেন। তখন তাঁর সাথে কিছু গম এসেছিল। তিনি দেখলেন যে, সিরিয়া থেকে আসা অর্ধ ছা‘ গমের মূল্য মদীনার এক ছা‘ খেজুরের মূল্যের সমান হয়। এমতাবস্থায় তিনি তাঁর ইজতিহাদী রায় প্রকাশ করলেন যে, কেউ গম দ্বারা ফেৎরা আদায় করলে অর্ধ ছা‘ দিতে পারে। সাথে সাথে বিশিষ্ট সাহাবী আবু সাঈদ খুদরী(রাঃ) তার তীব্র প্রতিবাদ করে বলেছিলেনঃ
‘আমি যতদিন দুনিয়ায় বেঁচে থাকব ততদিন তা (অর্ধ ছা‘ গমের ফিৎরা) কখনোই আদায় করব না। বরং (রাসূলুল্লাহ(সাঃ)-এর যামানায়) আমি যা দিতাম তাই-ই দিয়ে যাব’।
***বুখারীঃ ১৫০৮; মুসলিমঃ ৯৮৫।

Share This Post
Translate In English