কোরআন ও সহীহ সুন্নাহ ভিত্তিক বার্তা প্রচার করাই হল এই ওয়েবসাইটের মূল উদ্দেশ্য।।

যে গুনাহ তাওবা করার পরেও ক্ষমা হয়না

*আপনি কি কাউকে গালি দিয়েছেন?
* কাউকে মিথ্যা অপবাদ দিয়েছেন?
*কারো মাল অন্যায়ভাবে ভোগ করেছেন?
*কাউকে মেরেছেন?
*কাউকে হত্যা করেছেন?..
*কাউকে যেকোন উপায়ে অপমান-অপদস্থ কিংবা মানহানী করেছেন?
*কারো সাথে কোন প্রকার যুলুম(অত্যচার) করেছেন বা যেকোনভাবে ঠকিয়েছেন?
* বান্দার কোন হক নষ্ট করছেন?
…………………………
যদি করে থাকেন তাহলে আজই তার কাছে যেকোন উপায়ে ক্ষমা চেয়ে নিন এবং পাওনাদারের পাওনা বুঝিয়ে দিন।
অন্যথায় হাজার তওবা করার পরেও তা ক্ষমা হবেনা এবং নিমোক্ত হাদিস অনুযায়ী আপনার এত কষ্টার্জিত আমল তাকে দিয়ে দিতে হবে ও তার গুনাহ আপনার উপর চাপিয়ে দেয়া হবে। পরিশেষে আপনাকে জাহান্নামে নিক্ষেপ করা হবে …
……………………….
★আবূ হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ তোমরা কি বলতে পার, নিস্ব কে? তারা বললেন, আমাদের মধ্যে যার দিরহাম (টাকা কড়ি) ও ধন-সম্পদ নেই সেই তো নিস্ব। তখন তিনি বললেনঃ আমার উম্মাতের মধ্যে সেই প্রকৃত নিস্ব, যে ব্যক্তি কিয়ামতের দিন সালাত, সাওম ও যাকাত নিয়ে আসবে; অথচ সে এই অবস্হায় আসবে যে, একে গালি দিয়েছে- একে অপবাদ দিয়েছে, এর সম্পদ ভোগ করেছে, একে হত্যা করেছে ও একে মেরেছে। এরপর একে তার নেক আমল থেকে দেওয়া হবে, একে নেক আমল থেকে দেওয়া হবে। এরপর পাওনাদারের হক তার নেক আমল থেকে পূরণ করা না গেলে ঝণের বিনিময়ে তাদের পাপের একাংশ তার প্রতিনিক্ষেপ করা হবে। এরপর সে জাহান্নামে নিক্ষিপ্ত হবে।
(সহিহ মুসলিম:৬৩৪৩)
………………………..
★আবূ হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, যে ব্যাক্তি তার ভাইয়ের সম্ভ্রম হানী বা অন্য কোন বিষয়ে জুলুমের জন্য দায় থাকে, সে যেন আজই তার কাছ থেকে মাফ করায়ে নেয়, সে দিন আসার পূর্বে যে দিন তার কোনো দ্বীনার বা দিরহাম থাকবেনা। সে দিন তার কোনো সৎকর্ম থাকলে তার জুলুমের পরিমাণ তা তার নিকট থেকে নেওয়া হবে আর তার কোনো সৎকর্ম না থাকলে তার প্রতিপক্ষের পাপ থেকে নিয়ে তা তার উপর চাপিয়ে দেওয়া হবে। এবং তাকে জাহান্নামে নিক্ষিপ্ত করা হবে
(সহিহ বুখারি :২২৮৭,ইফা, সহিহ মুসলিম: ৬৩৪৩)
…………………………
সুতারং যদি নিজের কষ্ট অর্জিত আমল অন্যকে দিতে এবং অন্যের গুনাহ নিজের উপর চাপিয়ে জাহান্নামে না যেতে চান তাহলে আজই তাদের কাছে যেকোন উপায়ে ক্ষমা চেয়ে নিন এবং যাদেরকে আপনি যেকোনভাবে হোক ঠকিয়েছেন বা অন্যের হক নষ্ট করেছেন তাকে আজই তার পাওনা বুঝিয়ে দিন কিংবা মাফ করিয়ে নিন!!
…………………………
আল্লাহ আমাদের এখন থেকেই সচেতন হওয়ার ও সংশোধিত হওয়ার তৌফিক দান করুন!!! আমীন!!!

Share This Post
Translate In English