কোরআন ও সহীহ সুন্নাহ ভিত্তিক বার্তা প্রচার করাই হল এই ওয়েবসাইটের মূল উদ্দেশ্য।।

অযুর সময় ঘাড় মাসাহ করা বিদ’আত

অযুর সময় ঘাড় মাসাহ করা বিদ’আত
============================================
আমাদের অনেক ভাইদের দেখা যায় যে অযুর সময় ঘাড় মাসেহ করে থাকে, কিন্তু কখনও কি যাচাই করে দেখেছি হাদিস অনুযায়ী আমার ঘাড় মাসেহ করা ঠিক হচ্ছেনি বা রাসুল (সাঃ) অযুর সময় ঘাড় মাসেহ করছে কি?

★চলুন যেনে নেই ভুল কোনটি আর সহিহ কোনটি

#ভুল পদ্ধতি

উভয় হাতের পৃষ্ঠ দ্বারা ঘাড় মাসাহ করবে। (ফাতওয়ায়ে আলমগীরী ৫১ পৃঃ)★*★
=====================

#সহিহ পদ্ধতি

#রাসূল (সাল্লাল্লাহু আলাইহিওয়া সাল্লাম)-এর পদ্ধতিঃ ঘাড় মাসাহ করা বিদ’আত।

নাবী (সাল্লাল্লাহু আলাইহিওয়া সাল্লাম) হতে ঘাড় মাসাহ (বিশুদ্ধ সূত্রে) প্রমাণিত নয়।

সহীহ্ মুসলিমের ভাষ্যকার ইমাম নাবাবী (রঃ) একে বিদ‘আত বলেছেন।

(((সহীহ বুখারী তাওঃ প্র. টীকা ১১১ পৃঃ) উল্লেখ্য যে, উযূর শেষে কালিমায়ে শাহাদাত পড়া সুন্নাত। (মুসলিম-২/৩৯)))

======================

#ভুল পদ্ধতি

#মাথার এক-চতুর্থাংশ মাসাহ করা ফরয।

(মুথতাছার কুদুরী মাদ্রাসার ৯ম ও ১০ম শ্রেণীর পাঠ্য ৮ পৃঃ ফতোয়ায়ে আলমগিরী ২৮ পৃঃ বেহেশতী জেওর ১/৪১ পৃঃ ১৫ নং মাসআলায় মাথার অগ্রভাগ পরিমাণ মাসাহ করা ফরয।

(হিদায়া আলমগীরী-৪৫ পৃঃ ১/ ইফবা মাথার সম্মুখভাগ মাসাহ না করে যদি কোন ব্যক্তি মাথার পেছনের অংশ অথবা ডান বা বাঁদিকে মাথার মধ্যাংশ মাসাহ করে তবে মাসাহ দুরস্ত হবে।

((((তাতারখানিয়া’ ফাতোয়ায়ে আলমগীরী-১/৪৫)))))
======================

#সহিহ পদ্ধতি

#রাসূল (সাল্লাল্লাহু আলাইহিওয়া সাল্লাম)-এর পদ্ধতিঃ রাসূলুল্লাহ্ (সাল্লাল্লাহু আলাইহিওয়া সাল্লাম) উযূতে সম্পূর্ণ মাথা মাসাহ করতেন। যেহেতু আল্লাহ্ তা’আলা বলেছেনঃ ‘‘ওয়ামছাহু বিরুউসিকুম’’, অর্থাৎ তোমাদের মাথা সমূহ মাসাহ কর।

((((আল-মায়েদাঃ ৬))))

তার পর দু’হাত দিয়ে মাথা মাসাহ করলেন।
অর্থাৎ হাত দু’টি সামনে এবং পেছনে নিলেন। মাথার সম্মুখভাগ থেকে শুরু করে উভয় হাত পেছনের চুলের শেষ প্রান্ত পর্যন্ত নিলেন।

তারপর আবার যেখান থেকে শুরু করেছিলেন, সেখানেই ফিরিয়ে আনলেন।

((((সহীহুল বুখারী ১/১৮৫, মুসলিম ১৮৬, ১৯১, ১৯২, ১৯৭, ১৯৯, ২/৭, ২৩৫, আহমাদ ১৪৪৫)))
======================
চলুন সবাই সহিহ ভাবে অযু  করার চেষ্টা করি আর ঘাড় মাসেহ করা বিদ’ আত তাই তা বর্যন করি।⁠⁠⁠⁠

Share This Post
Translate In English